শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট কে, কখন আর কিভাবে দিবে – বিস্তারিত

করোনা ভাইরাসের কারণে বিদ্যালয় বন্ধ। শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত পাঠ মূল্যায়ন ও পরবর্তী শ্রেণীতে প্রমোশন দেওয়ার জন্য সম্প্রতি এনসিটিবিমাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর এবং মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর ৩০ দিনের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রণয়ন করেছে। ‌শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট দিয়ে মূল্যায়নের মাধ্যমে পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশন দেওয়া হবে। শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেখুন-

অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া ও মূল্যায়ণ প্রসঙ্গে মাউশি ৩১ অক্টোবর ২০২০ একটি নির্দেশনা দিয়েছেন তা দেখুন-

এই সিলেবাসের আলোকে শিক্ষার্থীদের কে সপ্তাহিক এসাইনমেন্ট দেয়া হবে শিক্ষার্থীরা সেসকল অ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে শিক্ষকের নিকট জমা দিবেন।

বাংলা নোটিশ ডট কম এ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর এবং মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর আর এনসিটিবি কর্তৃক প্রণীত ৩০ দিনের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করার পর আমাদের কাছে অসংখ্য প্রশ্ন আসছে যে শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে দেওয়া হবে এবং কারা এসাইনমেন্ট দিবে এবং কখন এসাইনমেন্ট শেষ করতে হবে। ‌

শিক্ষার্থীদের শিখন ফল মূল্যায়ন পদ্ধতি এবং অ্যাসাইনমেন্ট এর বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ২৫ অক্টোবর একটি মূল্যায়ন পদ্ধতি সম্বলিত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

মাউশি কর্তৃক প্রচারিত বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষার্থীদের শিখন ফল মূল্যায়ন পদ্ধতি ও অ্যাসাইনমেন্ট বিস্তারিত নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

শিক্ষার্থীদের উপর কোন প্রকার মানসিক ও শারীরিক চাপ যেন সৃষ্টি না হয় তাছাড়া শিক্ষকমন্ডলী এবং শিক্ষার্থীরা নিজেরাও যেন তাদের পাঠের অগ্রগতি দুর্বলতা সম্পর্কে বুঝতে পারে সে জন্য সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে নির্দেশনাগুলো প্রদান করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

৩০ দিনের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ:

শিক্ষার্থীদের যে সকল বিষয়ে পাঠদান সম্পন্ন করা যায়নি বা সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনসহ শিক্ষকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্লাস করার পরেও যে বিষয়ের পার্টগুলো বাকি রয়েছে সেই পাঠ এর উপর ভিত্তি করে 30 দিনের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রণয়ন করে এনসিটিবি কর্তৃক প্রকাশ করা হয়-

অ্যাসাইনমেন্ট নির্ধারণ:

অ্যাসাইনমেন্ট নির্ধারণের কাজ এনসিটিবির সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বিশেষজ্ঞগণ সিলেবাস থেকে নির্ধারণ করবেন।

শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া:

এনসিটিবি কর্তৃক প্রণীত অ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ প্রণয়ন শেষ হওয়ার পর মাঠ কর্মকর্তাদের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছে পৌঁছানো হবে।

প্রতিষ্ঠান প্রধান সেসকল নির্ধারিত কাজ সংশ্লিষ্ট বিষয় শিক্ষকের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নিকট পৌঁছাবেন।

শিক্ষার্থীরা এসাইনমেন্ট কিভাবে পাবে:

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান শ্রেণীভিত্তিক আলাদা সময়সূচী নির্ধারণ করে এবং আলাদা ভাবে শ্রেণীভিত্তিক অ্যাসাইনমেন্ট প্রধান ও গ্রহণের কাজ করবেন। ‌

অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে জমা দিবে:

শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত নিয়ম অনুসরণ করে শিক্ষকদের থেকে প্রাপ্ত এনসিটিবি কর্তৃক প্রণীত প্রতি সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ সম্পন্ন করে শিক্ষকদের দেওয়া নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিবে।

এ ব্যাপারে শিক্ষার্থীরা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে শিক্ষক অধ্যাপক অথবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের সাথে যোগাযোগ করবেন।

এসাইনমেন্ট কিভাবে মূল্যায়ন করা হবে:

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক অ্যাসাইনমেন্ট জমা দেওয়ার পর শিক্ষার্থীদের এসাইনমেন্ট এর আলোকে দুর্বল দিকগুলো চিহ্নিত করবেন এবং পরবর্তী শিক্ষাবর্ষে শেষ হল বিষয়ের উপর বিশেষ নজর দিয়ে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য অর্জনের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। ‌

অ্যাসাইনমেন্ট সংরক্ষণ:

প্রতিষ্ঠান প্রধান গান শিক্ষার্থীদের জমা দেওয়া অ্যাসাইনমেন্ট অবশ্যই সংরক্ষণ করতে হবে। যেকোনো সময় আকস্মিক পরিদর্শনে শিক্ষা কর্মকর্তা ঘন্টা পরিদর্শন করবেন।

কখন থেকে এসাইনমেন্ট দেওয়া শুরু হবে:

শিক্ষার্থীদের এসাইনমেন্ট দেওয়ার কার্যক্রম ও অ্যাসাইনমেন্ট জমা দেওয়ার কার্যক্রম পয়লা নভেম্বর 2020 তারিখ থেকে শুরু হবে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে থেকে দূরে চলে যাওয়া শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট কিভাবে সংগ্রহ করবো:

যে সকল শিক্ষার্থীরা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলে গিয়েছে সে সকল শিক্ষার্থীরা তাদের নিকটবর্তী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সংগ্রহ করতে পারবে।

প্রতি সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট দেখতে আমাদের ফেসবুক পেইজ টি লাইক করে রাখুন এবং BanglaNotice.com প্রতিদিন ভিজিট করুন।

৪ thoughts on “শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট কে, কখন আর কিভাবে দিবে – বিস্তারিত

  1. মাদ্রাসা যারা ইন্টার 2য় বর্ষে তারা কি ভাবে অ্যাসাইনমেন্ট তৈরি করবে কভার পেজে কোন নিয়মে কি,কি লিখবে ???
    বিস্তারিত বললে ভালো হতো!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *