একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির যাবতীয় তথ্য, বিজ্ঞপ্তি, নোটিশ, সময়সূচী, ভর্তি নীতিমালা, আবেদন ফি পরিশোধ পদ্ধতি, ভর্তি ফি প্রেরণ পদ্ধতি, নিশ্চায়ন বাতিল, কলেজ পছন্দক্রম, কলেজ সমূহের নূন্যতম জিপিএ, সকল পর্যায়ে আবেদন সহ অনলাইনে কলেজ ও মাদ্রাসায় ভর্তির বিভিন্ন বিষয় খুব সহজে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমাদের ফেসবুক পেইজ লাইক ও ফলো করে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর পেতে পারেন;
নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের বাংলা নোটিশ ডট কম প্রতিদিন অন্তত একবার ভিজিট করুন। এবং এই পেইজটি শেয়ার করে দিন।

ভর্তি সংক্রান্ত -জিজ্ঞাসা

গুরুত্বপূর্ণ লিংক সমূহ: 

একাদশ শ্রেণি ভর্তি, একাদশ ভর্তি, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি, একাদশ শ্রেণিতে অনলাইনে ভর্তি,

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির, আবেদন, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি তথ্য, একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির আবেদন ফরম

একাদশে ভর্তি, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি টিউটোরিয়াল, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিতে যা যা লাগবে, এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১, এইচএসসি ২০২০-২১ ভর্তির জন্য আবেদন পত্র, এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১ নিয়ম,

এইচএসসি ভর্তি ২০২০-২১ টিউটোরিয়াল, এইচএসসি ভর্তির আবেদন ফরম, এইচএসসি ভর্তির আবেদন, এইচএসসি/উচ্চ মাধ্যমিক/একাদশ শ্রেণিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ ভর্তি, এইচএসসি ভর্তিতে যা যা লাগবে,

উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি, উচ্চ মাধ্যমিক ২০২০-২১ ভর্তি, উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তির জন্য আবেদন পত্র, কিভাবে ভর্তি হবেন উচ্চ মাধ্যমিকে?, উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি নিয়ম, উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি নির্দেশিকা,

উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তি টিউটোরিয়াল, উচ্চ মাধ্যমিক ভর্তিতে যা যা লাগবে, আলিম ভর্তি, আলিম ভর্তির নিয়ম, আলিম ভর্তি ২০২০-২১, আলিম ভর্তির জন্য আবেদন পত্র, কিভাবে ভর্তি হবেন আলিম -এ,

আলিম ভর্তি নির্দেশিকা, আলিম ভর্তি টিউটোরিয়াল, আলিম ভর্তিতে যা যা লাগবে,

সাধারণ নির্দেশনা

► গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক অনুমোদিত সকল কলেজ/মাদ্রাসা/কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আবেদন করা যাবে।

► শ্রীঘ্রই প্রকাশিত নির্ধারিত তারিখে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য ইন্টারনেট (অনলাইনে) পদ্ধতিতে আবেদন করা যাবে।

► ভর্তি সংক্রান্ত সকল কার্যক্রমের সময়সূচি, ভর্তি নির্দেশিকা, আবেদনের নিয়মাবলী এবং ফলাফল নির্ধারিত ওয়েবসাইট www.xiclassadmission.gov.bd এবং স্ব স্ব বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও জানা যাবে।

► এই ভর্তি নির্দেশিকার যে কোনো ধারা/নিয়মাবলীর সংশোধন, সংযোজন বা বাতিল করার অধিকার শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

► ইন্টারনেটে (অনলাইনে) সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ/মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আবেদনের জন্য শিক্ষাবোর্ড কতৃক নির্ধারিত টাকা আবেদন ফি প্রযোজ্য হবে। (২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ১৫০/= ছিল।)

টেলিটক/বিকাশ/শিওরক্যাশ/নগদ-এর মাধ্যমে নির্ধারিত আবেদন ফি’র টাকা প্রদান করা যাবে।

► অনলাইন বা ইন্টারনেটে ভর্তি পদ্ধতিতে সর্বোচ্চ ১০টি প্রতিষ্ঠানে আবেদন করা যাবে তবে- একই প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিফট/ভার্সন/গ্রুপে আবেদন করা যাবে।

► আবেদনে শিক্ষার্থীর কোনো তথ্য অসত্য, ভুল বা অসস্পূর্ণ বলে প্রমাণিত হলে তার আবেদন/চূড়ান্ত ভর্তি বাতিল করার অধিকার শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

► প্রথমবার আবেদনের সময় শিক্ষার্থীকে একটি মোবাইল নম্বর দিতে হবে, যেটি শিক্ষার্থীর Contact Number হিসেবে বিবেচিত হবে। Contact Number টি শিক্ষার্থীর জন্য অতীব গুরত্বপূর্ণ কেননা পরবর্তীতে শিক্ষার্থীর সকল যোগাযোগ ও আবেদনের জন্য কিংবা ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আবেদন সংশোধনের জন্য এই Contact Number টির প্রয়োজন হবে।

► প্রয়োজনীয় অর্থ পরিশোধ করার সময় শিক্ষার্থী যে Contact মোবাইল নম্বর প্রদান করেছেন সেটি সাবধানে পূরণ করতে হবে। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ভর্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য এই নম্বরে পাঠানো হবে।

অভিভাবকের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরর প্রদান করতে হবে এবং তাঁর (যাঁর জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর প্রদান করছেন) সাথে শিক্ষার্থীর সম্পর্ক উল্লেখ করতে হবে ।

ভর্তির সময় পূরণকৃত জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর যাচাই করা হতে পারে এবং জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর (অভিভাবকের) পূরণ করা থাকলে ভর্তি প্রক্রিয়া সহজতর হবে।

► একাধিক শিক্ষার্থীর আবেদনে একই Contact Number ব্যবহার করা যাবে না অর্থাৎ ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষার্থীর Contact Number ভিন্ন ভিন্ন হতে হবে। Contact Number টি পরিবর্তন করা যাবে না, তাই এক্ষেত্রে যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে যাতে এটি ভুল না হয়।

► শিক্ষার্থীদের আবেদনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের Shift/ Version/Group অনুযায়ী পছন্দক্রম প্রযোজ্য হবে।
► ফলাফল প্রদানের পূর্বে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ইন্টারনেটের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) বার কলেজের পছন্দক্রম ও কলেজ পরিবর্তন করা যাবে।

► ৩ (তিন) টি পর্যায়ে ভর্তির ফলাফল প্রক্রিয়াকরণ করা হবে। একজন শিক্ষার্থীকে তার মেধা, কোটা ও পছন্দক্রমানুযায়ী একটি মাত্র কলেজের জন্য নির্বাচন করা হবে।

নির্বাচিত শিক্ষার্থী নিজেই অন-লাইনে বোর্ডের রেজিস্ট্রেশন ও অন্যান্য ফি বাবদ নির্ধারিত টাকা জমা দিয়ে প্রাথমিক ভর্তি নিশ্চায়ন করবে এক জন শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ২(দুই) বার স্বয়ংক্রিয়ভাবেকৃত মাইগ্রেশনের জন্য বিবেচিত হবে।

প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, স্বয়ংক্রিয়ভাবেকৃত মাইগ্রেশন সর্বদাই শিক্ষার্থীর পছন্দক্রমানুসারে উপরের দিকে যাবে।